Student Internship Scheme – সুখবর! চালু হলো ‘স্টুডেন্ট ইন্টার্নশিপ স্কিম’! প্রত্যেকে পাবে ১০ হাজার টাকা, জেনে নিন বিস্তারিত তথ্য

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জনকল্যাণ সাধনে একের পর এক প্রকল্প নিয়ে আসছেন। এবার রাজ্যের পড়ুয়াদের জন্য তিনি দিলেন এক খুশির খবর। চলতি বছরের শুরুতেই তরুণ প্রজন্মকে বেশ কয়েক পা এগিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করে দিলেন মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি কলকাতার ধনধান্যে স্টেডিয়ামে ছাত্রছাত্রীদের সম্মেলনে তপশিলি জাতি এবং উপজাতির পড়ুয়াদের জন্য ঘোষণা করলেন যোগ্যশ্রী প্রকল্পের (Yogyashree Scheme)।

যেখানে বিভিন্ন সরকারি পরীক্ষা, ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ডাক্তারি প্রবেশিকার জন্য বিনামূল্যে প্রশিক্ষণ ব্যবস্থার জন্য ৫০টি সেন্টার চালু করা হচ্ছে। সরকারি চাকরি পরীক্ষার জন্য প্রতি জেলায় ২টো করে মোট ৪৬টি সেন্টার তৈরি করা হবে এবং মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী এদিন স্টুডেন্ট ইন্টার্নশিপ স্কিম (Student Internship Scheme) চালু করার কথা ঘোষণা করেছেন। সকল পড়ুয়ারা এবার সুযোগ পাবেন সরকারি দফতরে ইন্টার্নশিপ করার। এমনকি ইন্টার্নশিপের পাশাপাশি ১০ হাজার টাকা করে পাবেন স্টাইপেন। যারা যোগ্য বলে বিবেচিত হবে, তাদের জন্য থাকছে বিশেষ পুরস্কার। আসুন জেনে নেওয়া যাক স্টুডেন্ট ইন্টার্নশিপ স্কিম সম্পর্কে বিস্তারিত।

স্টুডেন্ট ইন্টার্নশিপ স্কিম কি?

ছাত্রছাত্রীরা যাতে ছাত্রাবস্থাতেই সরকারি দফতরগুলিতে কাজ শিখতে পারেন সেই লক্ষ্যে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী চালু করলে স্টুডেন্ট ইন্টার্নশিপ স্কিম (Student Internship Scheme)। এই নয়া প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলার পড়ুয়ারা হাতেকলমে সরকারি নানা দফতর ও কার্যালয়ে কাজ শিখতে পারবেন। এই প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত ইন্টার্নরা বেতনের পরিবর্তে সাম্মানিক হিসেবে পাবেন প্রতি মাসে ১০ হাজার টাকা করে। পড়াশোনা শেষের পর কলেজ এবং ইউনিভার্সিটির পড়ুয়ারা ইন্টার্নশিপ স্কিমের জন্য আবেদন করতে পারবেন। স্নাতক স্তর, পলিটেকনিক, আইটিআই অথবা সমতুল্য পরীক্ষায় ৬০ শতাংশ নম্বর পেয়ে পাশ করলেই এই প্রকল্পের জন্য আবেদন জানানো যাবে। সর্বোচ্চ ৪০ বছর বয়সীরা এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারেন।

আরও পড়ুন »

এই প্রকল্পের মাধ্যমে সরকারি দফতর ছাড়াও বিডিও অফিস, পঞ্চায়েত সমিতির অফিস, পুসভা বা পুরনিগমের অফিস, জেলা পরিষদ এবং বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের কাজ হাতেকলমে শেখা যাবে। সর্বমোট ২৫০০ জন পড়ুয়া এই সুযোগ পেতে চলেছেন। যোগ্যতার উপর ভিত্তি করে এই সুযোগ দেওয়া হবে। কলেজ-পড়ুয়াদের জন্য ১ বছরের ইন্টার্নশিপ করার পরে যোগ্যতা বিচার করে তা রিনিউ করা হতে পারে। রাজ্যে এর আগে পড়ুয়াদের জন্য এই ধরনের সুযোগ সেভাবে ছিল না। স্বাভাবিকভাবেই তাদের কাছে কেরিয়ারের একটা নতুন দিক খুলে যেতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে।

মুখ্যমন্ত্রী কী বললেন ?

মুখ্যমন্ত্রী স্টুডেন্ট ইন্টার্নশিপ প্রসঙ্গে বলেন, ‘এ বছর আরও একটা নতুন স্কিম চালু করলাম, স্টুডেন্ট ইনটার্নশিপ স্কিম। আমি চাই ছোটবেলা থেকেই ছেলেমেয়েরা সরকারি কাজের সঙ্গে প্রশিক্ষণ নিক। এই প্রশিক্ষণে উত্তীর্ণ হতে পারলে প্রত্যেকে সার্টিফিকেট পাবেন। এক বছরের জন্য আড়াই হাজার পড়ুয়াকে এই ইন্টার্নশিপ দেওয়া হবে। পড়ুয়াদের যোগ্যতার বিচারে তাদের চাকরি রিনিউ হবে। এভাবে গ্রাসরুট থেকে লোক তুলে আনার চেষ্টা করছি আমরা। দক্ষতার সঙ্গে কাজ করতে পারলে সরকার তাঁদের আরও দীর্ঘ মেয়াদ ধরে কাজ করার সুযোগ দিতে পারে। ইনটার্নশিপ করার সময় ১০ হাজার টাকা রেমুনারেশান পাবেন।’

আরো পড়ুন » মাধ্যমিকের অ্যাডমিট কার্ড কবে থেকে হাতে পাবে পরীক্ষার্থীরা? জানিয়ে দিল পর্ষদ

এর পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী আরো বলেন, এখনো পর্যন্ত ৯ লাখের বেশি পড়ুয়া ট্যাব পেয়েছে, ১ কোটি ১৫ লক্ষ পড়ুয়া পেয়েছে সবুজসাথী সাইকেল এবং ৮৬ লক্ষেরও বেশি মেয়ে পাচ্ছে কন্যাশ্রী, এছাড়াও ওবিসি পড়ুয়াদের জন্য রয়েছে মেধাশ্রী প্রকল্প। ইতিমধ্যে রাজ্যের ২ লাখ ৫৪ হাজার ওবিসি পড়য়া মেধাশ্রী পেয়েছেন। এই বছর আরো ২ লাখ ৭৭ হাজার ওবিসি পড়ুয়া এই স্কলারশিপ পাবে। এসসি-এসটি স্কুলের হস্টেলে পড়ুয়াদের পড়াশোনা ও খাওয়াদাওয়ার জন্য বরাদ্দ ১০০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৮০০ টাকা করার কথাও ঘোষণা করেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, রাজ্যে বাংলার পাশাপাশি অন্যান্য ভাষা যথাক্রমে সাওতালি, উর্দু ও রাজবংশী ভাষাতেও পঠন পাঠনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর পাশাপাশি চালু করা হয়েছে বহু ইংরেজি মাধ্যম স্কুল।

আরও পড়ুন » কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন প্রকল্প ‘লাখপতি দিদি যোজনা’, দেশের সকল মহিলারা পাবেন এই সুবিধা

🔔 বিভিন্ন ধরনের সরকারি প্রকল্প, চাকরি, শিক্ষা ও স্কলারশিপ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপটেলিগ্রাম গ্রুপে যুক্ত হোন –

Leave a Comment

JoinJoin