Smart Panchayat: পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ‘স্মার্ট পঞ্চায়েত ২.০’। এক ক্লিকেই ট্রেড লাইসেন্স থেকে জমি, বাড়ির নথি, ঘরে বসেই মিলবে সুবিধা

স্মার্ট পঞ্চায়েত 2.0 (Smart Panchayat 2.0) প্রকল্পের অধীনে একটি বিশেষ হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটবট চালু করা হয়েছে। এই পদক্ষেপের ফলে গ্রামীণ এলাকার নাগরিকরা খুব সহজে বিভিন্ন পরিষেবার তথ্য পেতে পারবে।

Published on:
স্মার্ট পঞ্চায়েত 2.0 - Smart Panchayat 2.0

Smart Panchayat 2.0: টেকনোলজির উন্নতিকরণ ঘটিয়ে পশ্চিমবঙ্গের গ্রামাঞ্চলের মানুষদের আরও সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার লক্ষ্যে এগোচ্ছে রাজ্য সরকার। তারই একটি সার্থক রূপায়ণ হল ‘স্মার্ট পঞ্চায়েত ২.০‘। (Smart Panchayat 2.0) এখন গ্রাম হোক কি শহর, সবার হাতেই স্মার্টফোন। এক ক্লিকেই সব সুবিধা হাতের মুঠোয়। রাজ্যবাসীর হয়রানি কমাতে সরকার প্রায় সমস্ত কাজ অনলাইনে করে দিয়েছে। আগের মতো বিভিন্ন অফিসে ছুটতে হয়না। তবে এবার গ্রামের মানুষদের আরও সুবিধা দিতে ‘স্মার্ট পঞ্চায়েত ২.০’ নিয়ে বড় এবং গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ রাজ্য সরকারের।

- Advertisement -

গত কয়েক বছরে পঞ্চায়েত দপ্তর বহু অনলাইন পরিষেবা শুরু করেছে। এই সকল পরিষেবার হাত ধরে উপকৃত হয়েছেন গ্রামের মানুষ। নিয়োগ থেকে প্রকল্প সবটাই এখন অনলাইনে হয়। সরকারি প্রকল্পের সাহায্য পেয়ে গ্রামবাসী অর্থনৈতিক ভাবে স্বাবলম্বী হচ্ছেন। সরকারি ঋণ পেতে কৃষি জমিতে ফসল উৎপাদনে ব্যাপক সহায়তা হয়েছে। গ্রাম পঞ্চায়েতের নিয়োগ নিয়েও পশ্চিমবঙ্গ সরকার অনলাইন পোর্টাল চালু করেছে। পঞ্চায়েতের পদ পূরণের জন্য আলাদা একটি পোর্টাল চালু হয়েছে। তবে এসব ছাড়াও এবার আরো সুবিধা পাবেন গ্রামবাসীরা।

গ্রামাঞ্চলের সাধারণ মানুষ যাবতীয় পরিষেবার বিষয়ে যাতে অনলাইনে আপডেট পেয়ে যান, তার জন্য ‘স্মার্ট পঞ্চায়েত ২.০’ প্রকল্পের আওতায় একটি নতুন হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটবট চালু হল। যার ফলে গ্রামবাসীর হাতের নাগালে চলে এল যাবতীয় সরকারি পরিষেবা। গোটা প্রক্রিয়াটি আরো সহজ হলো। রাজ্য সরকার এই উদ্যোগের প্রচার করার জন্য অগ্রণী ভুমিকা পালন করছে। শুক্রবার ধন্যধান্য অডিটোরিয়ামে আয়োজন করা হয়েছে একটি বৈঠকের। সূত্রের খবর, যেখানে স্মার্ট পঞ্চায়েত নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

- Advertisement -

‘স্মার্ট পঞ্চায়েত ২.০’ হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটবটে কি কি সুবিধা পাবেন?

প্রাথমিকভাবে যা জানা যাচ্ছে, ‘স্মার্ট পঞ্চায়েত ২.০’ হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটবটে ট্রেড লাইসেন্স, বাড়ির নথি -সহ একগুচ্ছ সুবিধা মিলবে। সুবিধাগুলো কি কি? আসুন জেনে নেওয়া যাক।

- Advertisement -

১) পশ্চিমবঙ্গের গ্রামবাসী এবার বাড়িতে বসেই বাড়ি তৈরির অনুমোদনের শংসাপত্র ডাউনলোড করতে পারবেন। তাও খুব সহজে।

২) হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটবটের মাধ্যমে ডাউনলোড করে নেওয়া যাবে ট্রেড নো অবজেকশন সার্টিফিকেট বা (ট্রেড এনওসি)।

৩) রাজ্যের পঞ্চায়েতে কর্মরতরা এই চ্যাটবট থেকে একাধিক প্রয়োজনীয় তথ্য পাবেন। যার মধ্যে রয়েছে, পে স্লিপ, বার্ষিক বেতন, বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মেসেজ, ইত্যাদি।

৪) এছাড়া, গেস্ট হাউস বুকিং করা যাবে অত্যন্ত সহজ পদ্ধতিতেই।এছাড়াও আরো আরো কিছু পরিষেবা যুক্ত করা হবে বলে জানা যাচ্ছে।

৫) মোট কথা, রাজ্যে পঞ্চায়েতের যাবতীয় পরিষেবা সংক্রান্ত বিষয়গুলি এই উদ্যোগের ফলে সাধারণ মানুষের হাতের নাগালে থাকবে। কিভাবে মিলবে এই সকল সুবিধা?

ইতিমধ্যে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পঞ্চায়েত ও গ্রামোন্নয়ন দফতরের তরফে একটি নম্বর শেয়ার করা হয়েছে। নম্বরটি হল ৬২৯১২৬৫৮৫৪। ঠিক এই নম্বরে যখন কোনো গ্রামবাসী হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে যোগাযোগ করবেন, তখন তাঁরা এই সকল পরিষেবা অতি সহজেই পেয়ে যাবেন। এই উদ্যোগ বিভিন্ন মহলে প্রশংসিত হচ্ছে। গ্রামাঞ্চলের সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা এর দ্বারা আরও সহজলভ্য হবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

🔔 বিভিন্ন ধরনের সরকারি প্রকল্প, চাকরি, শিক্ষা ও স্কলারশিপ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপটেলিগ্রাম গ্রুপে যুক্ত হোন –

Share.
           facebook [#ffffff] Created with Sketch.            
I'm Saheb, a content writer in education and government schemes. I research, write, and edit articles on education and government schemes, presenting complex information clearly. I'm passionate about creating engaging, informative content that educates. In my free time, I read, travel, and spend time with loved ones. I'm always learning. Read More...
For Feedback - contact.infonetbangla@gmail.com

Leave a Comment

JoinJoin
Notification Powered by inbPush