Lakhpati Didi Yojana – কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন প্রকল্প ‘লাখপতি দিদি যোজনা’, দেশের সকল মহিলারা পাবেন এই সুবিধা

Lakhpati Didi Yojana : কেন্দ্র সরকার সকল ভারতীয় নাগরিকদের উন্নতিকল্পে একাধিক জনকল্যাণমূলক প্রকল্প শুরু করেছে। ভারতের প্রতিটি মহিলাকে আর্থিকভাবে স্বনির্ভর করার উদ্দেশ্যে কেন্দ্রীয় সকার এবার শুরু করতে চলেছেন ‘লাখপতি দিদি যোজনা’ (Lakhpati Didi Yojana)। ইতিমধ্যে দেশের ২ কোটি মহিলার ক্ষমতায়ন করার লক্ষ্যে এই প্রকল্প শুরু করা হয়েছে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের প্রতিটি মহিলা নিজেদের দক্ষতা বৃদ্ধি করে লাখ লাখ টাকা উপার্জন করতে পারবেন। এই কারণে কেন্দ্র সরকার প্রায় ১৫০কোটি টাকার চেক বিতরণ করেছে। এই পরিকল্পনার অধীনে প্রতিটি মহিলাকে প্রশিক্ষণও দেওয়া হবে।

Lakhpati Didi Yojana 2024

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, গত বছর অর্থাৎ ২০২৩ সালের স্বাধীনতা দিবসের দিন লালকেল্লার থেকে ‘লাখপতি দিদি’ প্রকল্পর (Lakhpati Didi Yojana) কথা ঘোষণা করেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছেন, সরকারের  লক্ষ্য দেশের সকল মহিলাদের স্বাবলম্বী করার পাশাপাশি আর্থিক উন্নতি সাধন করা, আর এই লক্ষ্যেই তৈরি করা হয়েছে ‘লাখপতি দিদি যোজনা’ নামক প্রকল্পটি। তিনি আরো জানিয়েছিলেন যে, এই প্রকল্পটি বাস্তবায়নের ফলে স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলির সাথে যুক্ত প্রায় ১০ কোটি মহিলা উপকৃত হবেন। এই স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলির মধ্যে রয়েছে ‘ব্যাঙ্কওয়ালি দিদি’, ‘অঙ্গনওয়াড়ি দিদি’, ‘মেডিসিনওয়ালি দিদি প্রভৃতি’৷ 

আরও পড়ুন »

প্রাথমিকভাবে দেশের ২ কোটি মহিলাকে ‘লাখপতি দিদি’ (Lakhpati Didi Yojana) করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর এই ঘোষণার পর রাজস্থানের মহিলাদের হাত ধরে লাখপতি দিদি যোজনা বাস্তবায়নের কাজ শুরু হয়েছে। কিছুদিন আগেই বিধানসভা নির্বাচনে রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন বিজেপি প্রার্থী ভজনলাল শর্মা। মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ নেওয়ার পরেই রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী ভজনলাল শর্মা এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করার কাজ শুরু করেছেন। জয়সলমীরের শহিদ পুনম সিং স্টেডিয়ামে লাখপতি দিদি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল, যেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মু। 

আরও পড়ুন » আয়ুষ্মান কার্ড তৈরি করতে এখন আর লাগবে না রেশন কার্ড! নতুন নির্দেশ দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

রাষ্ট্রপতি ঘোষণা করেছিলেন যে, রাজস্থানের ১১.২৪ লাখ মহিলা এই Lakhpati Didi Yojana-র সুবিধা পাবেন। মহিলারা একটি অনলাইন ফর্ম পূরণ করে স্কিমের সুবিধা পেতে পারেন। স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সাথে যুক্ত মহিলারা এই প্রকল্পের দ্বারা সবচেয়ে বেশি উপকৃত হবেন। ইতিমধ্যেই রাজস্থানের প্রায় ৩ লাখ মহিলা এই প্রকল্পে নিজেদের নাম নথিভুক্ত করিয়ে ফেলেছেন। এই প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট মহিলাকে একটি স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সদস্যা হতে হবে। যে সকল মহিলা মূলত পারিবারিকভাবে অস্বচ্ছল তাদের লাখপতি দিদি যোজনায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে। ওই মহিলাদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। এমনকি তারা এই প্রকল্পের আওতায় বীমা এবং ঋণের সুবিধা পাবেন।

আরও পড়ুন » রাজ্যে চালু হলো যোগ্যশ্রী প্রকল্প, জেনে নিন কি কি সুবিধা মিলবে

এই প্রকল্পের অধীনে স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলির সাথে যুক্ত মহিলাদের LED বাল্ব, প্লাম্বিং, ড্রোন মেরামতের মতন প্রযুক্তিগত কাজ শিখিয়ে স্বনির্ভর করা হবে। লাখপতি দিদি যোজনার সুবিধা পেতে গেলে যে নথিগুলি আবশ্যক তা হলো, আবেদনকারীর আধার কার্ড ও মোবাইল নম্বর, আবেদনকারীর পাসপোর্ট সাইজ ছবি, আবেদনকারীর মাসিক বা বার্ষিক আয় এবং স্থায়ী বা অস্থায়ী বসবাসের শংসাপত্র, প্যান কার্ড এবং মোবাইল নম্বরের সঙ্গে লিঙ্কড থাকা সেভিংস ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, সরকারি স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সদস্যা হওয়ার প্রমাণপত্র।

🔔 বিভিন্ন ধরনের সরকারি প্রকল্প, চাকরি, শিক্ষা ও স্কলারশিপ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপটেলিগ্রাম গ্রুপে যুক্ত হোন –

Leave a Comment

JoinJoin