Unique Business Idea – আজ পর্যন্ত কেউ বলেনি, দুর্দান্ত বিজনেস, ঘরে বসে শুরু করলেই কাস্টমারদের লাইন পড়ে যাবে

ব্যবসা করতে চাইছেন। পরিচিত বন্ধুবান্ধব মহলে এই বিষয় নিয়ে বিভিন্নবার আলোচনা করেছেন। জানতে চাইছেন, বাজারে কোন ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে? কিভাবে সেই ব্যবসায় লাভ করতে পারবেন? বিভিন্ন মানুষ বিভিন্ন ধরনের উপদেশ দিয়েছেন। কোনো উপদেশ হয়তো একটু ভালো লেগেছে, কোনো উপদেশ আবার একেবারেই ভালো লাগেনি। ব্যবসা শুরুর মুখে যথেষ্ট বিভ্রান্ত হয়ে রয়েছেন। অনেকে অনেক ধরনের ব্যবসার কথা আপনাকে জানালেও এই ব্যবসাটি সম্পর্কে কি কেউ আপনাকে বিস্তারিত বলেছেন? মনে হয়, অধিকাংশ মানুষ সেই ব্যবসাটি সম্বন্ধে জানাননি, আর নয়তো তারা নিজেরাই জানেন না। আবার এক্ষুনি এই ব্যবসার কথা আপনাকে বললে যেন চট করে আপনার মনে পড়ে যাবে। ওহ হো– এই ব্যবসা! এতো বেশ দুর্দান্ত ব্যাপার। হ্যাঁ, এরকম একটি ব্যবসার কথা বলব।

হাতে মুঠোফোন নেই, এরকম ধরনের মানুষকে এখন খুঁজে পাবেন? তার উত্তর হবে– না। অর্থাৎ এই মুহূর্তে প্রায় প্রত্যেকের হাতেই কোনো না কোনো স্মার্টফোন (Smartphone) রয়েছে। আর এই স্মার্টফোনকে সুরক্ষিত করে রাখার জন্য অধিকাংশরাই একটি মোবাইল ব্যাক কভার (Mobile Back Cover for Safety) ব্যবহার করে থাকেন।

❖  Related Articles

এবার সাদামাটা ব্যাক কভারের থেকে একটি আকর্ষণীয় সুন্দর ডিজাইনের যদি মোবাইল ব্যাক কভার আপনার মোবাইলটিকে আচ্ছাদিত করে রাখে, তাহলে তা মানুষের কাছে আপনার স্টাইলিস্ট স্টেটমেন্ট (Stylish Statement) হিসেবে পরিচিতি দেয়। আর তাই এখন মোবাইল ব্যাক কভারে বিভিন্ন ধরনের সুন্দর সুন্দর ডিজাইন (Attractive Design) এমনকি প্রিয়জনের ছবি দিয়ে প্রিন্ট আউট করে সেই কভার ব্যবহার করছেন সকলে। তাতে একদিকে যেমন মোবাইলটি সুরক্ষিত থাকছে, পাশাপাশি আকর্ষণীয় মোবাইল ব্যাক কভার এর জন্য দেখতেও যথেষ্ট সুন্দর লাগছে। আর এই কাজটিকেই আপনার ব্যবসায় রূপান্তরিত করতে পারেন। কিরকম ভাবে, জেনে নিন:

বর্তমান সময়ে চাহিদা মেনে শুরু করে দিতে পারেন মোবাইল ব্যাক কভার প্রিন্টিং বিজনেস (Mobile Back Cover Printing Business Idea 2024) যেখানে বিরাট টাকা পুঁজি বিনিয়োগের যেমন দরকার নেই, তেমনি এর মার্কেট তৈরি করতে ছোটাছুটি করতে হবে না। যেহেতু সকলের হাতে স্মার্টফোন রয়েছে, আর সকলেই কোনো না কোনো স্টাইলিশ লুকের মোবাইল ব্যাক কভার চেয়ে থাকেন, ফলে আপনি যদি সেরকম সুন্দর ডিজাইন দিয়ে মোবাইল ব্যাক কভার তৈরি করতে পারেন, তাহলে সহজেই market পেয়ে যাবেন। আর তার ফলে মুনাফাও হবে প্রচুর। কিন্তু এ পর্যন্ত তো মোবাইল ব্যাক কভার প্রিন্টিং বিজনেসের কথা বলা হলো। কিন্তু শুরু করবেন কিভাবে? কি কি মেশিন লাগবে? বিনিয়োগ কত হবে? কিভাবে মার্কেটিং করবেন? সেই বিষয়টি একবার জেনে নেওয়া দরকার:

unique business idea
Unique Business Idea

Mobile Back Cover Printing Business Idea

মোবাইল ব্যাক কভার প্রিন্টিং বিজনেস শুরু করতে গেলে প্রথমেই বেশ কিছু মেশিন এবং কাঁচামাল প্রয়োজন হবে। কি কি লাগবে, তার কত দাম এবং কোথা থেকে কিনবেন দেখে নিন:

  • Sublimation Machine— দাম পড়বে ১৫ থেকে ২৫ হাজার টাকা।
  • Sublimation Paper— দাম পড়বে প্রতি ৫০ পিস ৩৫০ টাকা।
  • Sublimation Paper Printing Ink— দাম পড়বে 1 হাজার থেকে 1500 টাকা।
  • Printer— দাম ১০ হাজার থেকে ১৫ হাজার টাকা।

এবার এই সমস্ত মেশিন এবং কাঁচামাল আপনি অনলাইনে Amazon এর মাধ্যমে বাড়িতে বসেই পেয়ে যাবেন। তাছাড়া অফলাইনে কোনো পাইকারি মার্কেটে গিয়ে খোঁজ করেও কিনতে পারেন।

আরও পড়ুন » ২০২৪ এ শুরু করুন এই ব‍্যবসা, মালামাল হয়ে যাবেন

এবার দেখে নেওয়া যাক, কি পদ্ধতিতে মোবাইল ব্যাক কভার প্রিন্টিং কাজটি সম্পূর্ণ করবেন (Mobile Cover Printing Business Process):

১) এই কাজের জন্য প্রথমে একটি কম্পিউটারের প্রয়োজন হবে। কম্পিউটারে 99 Sublimation Software এবং Printer যুক্ত করতে হবে।
২) এবার মোবাইলের ব্যাক কভার এর Theme সিলেক্ট করে এই সফটওয়্যার এর মাধ্যমে প্রিন্ট করতে হবে এবং Mirror Image বার করে নিতে হবে।
৩) এরপর সেটিকে Sublimation Tape দিয়ে ব্যাক কভারে লাগিয়ে দিতে হবে। যা ২০০ ডিগ্রী তাপমাত্রাতেও গলে যাবে না। এ রকমই একটি বিশেষ ধরনের সাব্লিমেশন টেপ এটি।
৪) স্মার্টফোনের মডেল সম্পর্কিত Barcode মোবাইল পেপার এর ভিতরে লাগিয়ে দিতে হবে। এই বারকোড এবং ডেসক্রিপশন সাব্লিমেশন টেপ দিয়েও লাগিয়ে দিতে পারেন।

৫) এবার Sublimation Machine Temperature এবং Timing Set করে তার ভিতরে এই কভারটিকে সেট করতে হবে। এখানে রাব (Rub) করাটা ভীষণভাবে জরুরী। যাতে সেটি সম্পূর্ণভাবে সেট হয়ে যায়।
৬) সাধারণত সাবলিমেশন মেশিনে ৮ মিনিটের টাইমিংস থাকে এবং ২০০ ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড টেম্পারেচার দেওয়া থাকে।
৭) এই নির্ধারিত ৮ মিনিট সময়ের পরে কভারটি মেশিন থেকে বের করে নিতে পারেন। উপরের পেপারটি তুললেই দেখতে পাবেন Cover Theme সুন্দরভাবে সেট হয়ে গিয়েছে। এবার সেটি ব্যবহারের জন্য প্রস্তুত হয়ে গেছে।

কিভাবে মার্কেটিং করবেন? (Mobile Cover Marketing Strategy)

মার্কেটিং স্ট্রাটেজির প্রথম ধাপ হল, এই মোবাইলের যে আকর্ষণীয় ব্যাক কভারটি তৈরি করলেন, সেটিকে নিজের কোনো ব্র্যান্ড নেম দিয়ে সুন্দরভাবে প্যাকেজিং করতে হবে।

প্যাকেজিংয়ের সময় প্রত্যেকটি প্যাকেটের উপর নির্ধারিত মডেল নম্বর এবং কোন কোম্পানির কোন স্মার্টফোনের মডেলের জন্য এই ব্যাক কভারটা, নির্দিষ্ট করে মেনশন করে দিতে হবে। যাতে আপনি পাইকারি বা রিটেল যেখানে বিক্রি করতে যান না কেন, সেখানে খুব সহজেই গ্রাহকদের সেই মডেলের ব্যাক কভারটি দেওয়া যায়। এই মুহূর্তে ডিজিটাল যুগে বিভিন্ন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইনে মোবাইল ব্যাক কভার বিক্রি করতে পারেন।

সেক্ষেত্রে Amazon, Flipkart, SnapDeal এর মত বহু E-COMMERCE সাইট রয়েছে। সেখানে বিক্রি করতে পারেন। আবার পাইকারি মার্কেটে গিয়েও একেবারে বান্ডিল বান্ডিল Mobile Back Cover বিক্রি করে দিয়ে আসতে পারেন। পাশাপাশি আপনার স্থানীয় এলাকায় বহু মোবাইল এক্সেসরিজ এর দোকান আছে। সেখানেও বিক্রি করতে পারেন। ফলে মার্কেটে চাহিদা যথেষ্ট রয়েছে। সেই বিষয়ে কোনো চিন্তা নেই।

আরও পড়ুন » Small Business idea – মাত্র ৫ হাজার টাকা বিনিয়োগ করে বাড়িতেই শুরু করুন এই ব্যবসা, আয় হবে মোটা টাকা

কত টাকা লাভ হবে? (Business Investment and Profit Margin)

মোবাইল ব্যাক কভার প্রিন্টিং বিজনেস শুরু করতে গেলে কমবেশি ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। কারণ এর আগেই কি কি মেশিন লাগবে এবং তার কত দাম সমস্ত কিছুই তুলে ধরা হয়েছে। ফলে অটোমেটিক মেশিন এবং Raw মেটেরিয়ালস মিলিয়ে কিছুটা বিনিয়োগ করতে হবে।

এবার মোবাইল ব্যাক কভার যদি দুর্দান্ত ডিজাইন দেওয়া আকর্ষণীয় হয়, তাহলে খুব সহজেই ভালো দাম পেয়ে যাবেন। ফলে ঠিকমতো ব্যবসা শুরু করতে পারলে প্রথমদিকে অন্তত ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন। এবার সম্পূর্ণ উপার্জনটাই নির্ভর করছে, কত সময়ের মধ্যে কতখানি আকর্ষণীয় মোবাইল কভার তৈরি করতে পারেন, সেই বিষয়ের উপর। সাধারণত ২০ মিনিট সময়ের মধ্যে অন্ততপক্ষে ৪টি আকর্ষণীয় মোবাইল ব্যাক কভার প্রস্তুত করে ফেলা যায়। ফলে ঘরে বসে সামান্য কিছু বিনিয়োগ করে এই দুর্দান্ত বিজনেসটি শুরু করে ফেলতে পারেন।

🔔 বিভিন্ন ধরনের সরকারি প্রকল্প, চাকরি, শিক্ষা ও স্কলারশিপ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপটেলিগ্রাম গ্রুপে যুক্ত হোন –

Leave a Comment

Join Join