CAA Rules – দেশজুড়ে চালু হল CAA আইন! কী কী করতে হবে? নাগরিকত্ব হারাবে? যে বিষয়গুলি না জানলেই নয়, দেখে নিন একনজরে

CAA Rules: গত ১১ মার্চ সোমবার ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তের পথে হাঁটলো কেন্দ্রীয় সরকার। ভারতবর্ষে চালু হল CAA আইন বা Citizen Amendment Act (CAA)। পার্লামেন্টে পাশ হলেও দেশে এর আগে এই আইন চালু নিয়ে ধন্দ চলছিল। তবে লোকসভা ভোটের আগেই সর্বসমক্ষে সিদ্ধান্ত জানালো কেন্দ্র। CAA আইন চালু হচ্ছে দেশে। নাগরিকত্বের প্রমাণ দিতে হবে দেশবাসীকে। যাঁরা পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে ভারতে এসে বাসিন্দা হয়ে উঠেছেন, তাঁদের হাতেও তুলে দেওয়া হবে ভারতীয় নাগরিকত্ব। পশ্চিমবঙ্গ সরকার CAA আইনের বিরুদ্ধে গর্জে এসেছেন বারংবার। তবে সব নস্যাত্ করে CAA চালু করে দিল মোদী সরকার।

CAA Rules News

কেন্দ্রীয় সরকারের এই পদক্ষেপের ফলে চিন্তায় পড়েছেন ভারতভূমির জনসাধারণ। সরাষ্ট্র মন্ত্রক সূত্রে খবর, CAA কোনো মানুষের নাগরিকত্ব কেড়ে নেবে না। বরং সবাইকে নাগরিকত্ব প্রদান করবে। ভারতের প্রতিবেশী দেশ থেকে আসা ভিন্ন ধর্মের  জনসাধারণ এর দ্বারা ভারতীয় নাগরিকত্ব লাভ করতে পারবেন।

1) CAA আইনে নাগরিকত্ব পাচ্ছেন কারা?

CAA আইনের নিয়ম বলছে, যাঁরা গত ছয় বছর ধরে ভারতবর্ষে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন তাঁদের সবাইকেই নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। অর্থাৎ ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বরের আগে ভারতে যে শরণার্থীরা এসেছিলেন, এবং স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন, তাঁরা সবাই ভারতের নাগরিকত্ব পাবেন। তাঁদের সবাইকে ভিসা ও ইমিগ্রেশন স্ট্যাম্প দিতে হবে। বাংলাদেশ, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, থেকে আসা হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, পার্সি, জৈন, খ্রিষ্টান মানুষেরা ভারতের স্থায়ী নাগরিকত্ব পাবেন।

❖  Related Articles

2) CAA প্রক্রিয়াটি কাজ করবে কিভাবে?

সাধারণ মানুষ অনলাইনের মাধ্যমে নাগরিকত্বের আবেদন জানাবেন। সরকার এই প্রক্রিয়ার জন্য  (https://indiancitizenshiponline.nic.in)-এই পোর্টালটি চালু করেছে। পোর্টালের মাধ্যমে প্রেরিত আবেদনপত্রটি এরপর যাবে জেলা কমিটির কাছে। জেলা কমিটি থেকে আবেদন যাবে এমপাওয়ার্ড কমিটিতে। এমপাওয়ার্ড কমিটি আবেদনপত্র দেখে নাগরিকত্ব দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানাবে। এই কমিটিতে থাকবেন সাত জন সদস্য যার প্রধান হবেন সেন্সাস প্রক্রিয়ার ডিরেক্টর।

3) নাগরিকত্বের আবেদনের জন্য কোন কোন নথি লাগবে?

ভারতীয় নাগরিকত্ব পাওয়ার অনলাইন ফর্মে বলা হয়েছে, এই প্রক্রিয়ায় মোট নয় ধরণের ডকুমেন্ট লাগবে। নাগরিকত্বের জন্য প্রয়োজনীয় নথিগুলি হল- (পাসপোর্ট, জন্ম সার্টিফিকেট, শিক্ষাগত যোগ্যতার সার্টিফিকেট, প্যান কার্ড, রেশন কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, জমির নথি, বিয়ের শংসাপত্র ইত্যাদি)। তফসিল ১বি-এর অধীনে ২০ ধরনের নথি, তফসিল ১-সির অধীনে হলফনামা দিতে হবে। আবেদনপত্রে উল্লেখ থাকবে যে তাঁরা সংশ্লিষ্ট তিন দেশের অ-মুসলিম উদ্বাস্তু।

4) যদি উল্লিখিত কোনো নথি না থাকে তাহলে কী হবে?

যদি একজন আবেদনকারীর উল্লিখিত নথির মধ্যে কোনো নথি না থাকে, তবে তিনি তার সাপেক্ষে উপযুক্ত কারণ দেখাবেন।আবেদনকারী যে রাজ্যে বাস করছেন, সেই রাজ্যে থাকার জন্য আবেদন জানাতে পারবেন।

5) নাগরিকত্বের জন্য কী কী ফর্ম পূরণ করতে হবে?

যাঁরা নাগরিকত্বের জন্য আবেদন জানাচ্ছেন, তাঁরা অনলাইন ফর্মে নিজেদের বাবা-মা অথবা নিজের স্বামীর নাম উল্লেখ করবেন। ফর্মে এও উল্লেখ করা গুরুত্বপূর্ণ যে, আপনি কোন দেশ থেকে এসেছেন কতদিন ধরে এদেশে আছেন, আপনি কোন ধর্মের নাগরিক, সেই সমস্ত তথ্য উল্লেখ করতে হবে।

আরও পড়ুন » Credit Card – আয়ের প্রমাণ ছাড়াই এবার হাতে পেতে পারেন ক্রেডিট কার্ড! এই নিয়মগুলি জানেন না অনেকেই, এক্ষুনি জেনে নিন আপনি

6) বিবাহিত ও অবিবাহিত নাগরিকদের জন্য কী আলাদা ফর্ম দেওয়া হবে?

কেন্দ্রীয় সরকারি পোর্টালে বিবাহিত ও অবিবাহিত নাগরিক এবং শিশুদের জন্য থাকছে আলাদা ফর্ম। আপনি যদি এদেশে আসার পর বিবাহিত হন, তাও উল্লেখ করতে হবে। 

7) আবেদনকারীর নাম যদি পুলিশ অভিযুক্তের তালিকায় থাকে তখন কী হবে?

যদি কোনো আবেদনকারীর নাম পুলিশ অভিযুক্তর তালিকায় থাকে, অথবা আবেদনকারীর ক্রিমিনাল রেকর্ড থাকে, তবে কর্তৃপক্ষ তাঁর প্রেক্ষিতে সিদ্ধান্ত নেবে। যদি কর্তৃপক্ষর মত থাকে তবে তিনি ভারতের নাগরিকত্ব পাবেন, আর যদি মত না থাকে তবে তাঁর ফর্ম বাতিল করা হতে পারে।

8) নাগরিকত্ব পেতে হলে কী শর্ত থাকছে?

ভারতের নাগরিকত্ব পেতে হলে একজন ব্যক্তিকে আবেদনের আগে এদেশে কমপক্ষে বারো মাস বসবাস করতে হবে। তিনি যদি ভারতে স্থায়ীভাবে বসবাস করতে চান, তাও জানাতে হবে। তবেই সেই ব্যক্তির আবেদন গৃহীত হবে ও তিনি নাগরিকত্ব পাবেন।

5) নাগরিকত্বের শংসাপত্র কিভাবে মিলবে?

https://indiancitizenshiponline.nic.in/ এই ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইনের মাধ্যমে নাগরিকত্বের জন্য আবেদন জমা দেওয়ার পর তা যাচাইকরণের জন্য পাঠানো হবে। যাচাই প্রক্রিয়ায় খতিয়ে দেখা হবে আবেদন। আবেদনকারী যদি কোনো ভুল বা অসত্য তথ্য দেন তবে তাঁর আবেদন বাতিল হতে পারে। যাচাই প্রক্রিয়া শেষে নাগরিকত্বের ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও হার্ড কপি দেওয়া হবে।

6) CAA আইনে কারোর নাগরিকত্ব বাতিল হবে?

সরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, এই আইনে কারোর নাগরিকত্ব বাতিল হবেনা। বরং সবাইকেই নাগরিকত্ব দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন » কোটি কোটি Airtel গ্রাহকদের মাথায় হাত, এই দুটি রিচার্জ প্ল্যানের দাম বেড়ে গেলো

🔔 বিভিন্ন ধরনের সরকারি প্রকল্প, চাকরি, শিক্ষা ও স্কলারশিপ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপটেলিগ্রাম গ্রুপে যুক্ত হোন –

Leave a Comment

Join Join