PM Jan Dhan Scheme – প্রধানমন্ত্রী জনধন যোজনায় একঝাঁক সুবিধা! আবেদন করতে কী কী যোগ্যতা লাগবে? কিভাবে আবেদন করবেন, জেনে নিন

PM Jan Dhan Scheme: ভারতবর্ষের আমজনতার স্বার্থে একাধিক প্রকল্পের সূচনা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। প্রতিটি প্রকল্পের দ্বারাই জনসাধারণ একঝাঁক সুবিধা পেয়ে থাকে। কোনটাতে আর্থিক সুবিধা তো কোনোটায় সঞ্চয় বৃদ্ধি, তাছাড়া ছাত্রছাত্রীদের জন্য স্কলারশিপ স্কিম, স্বাস্থ্য সুরক্ষায় প্রকল্প ও আবাস প্রকল্পেরও সূচনা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। সরকারের উদ্দেশ্য ভারতভূমির সমস্ত নাগরিকেরই যেন সার্বিক উন্নতি হয়।

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে চালু হওয়া এক বিশেষ জনপ্রিয় প্রকল্প হল প্রধানমন্ত্রী জনধন যোজনা (PM Jan Dhan Scheme)। এই স্কিমের সুবিধা কী কী? কারা আবেদন জানাতে পারবেন? কিভাবে আবেদন জানাবেন? সমস্ত তথ্য তুলে ধরা হল এই প্রতিবেদনে।

PM Jan Dhan Scheme
❖  Related Articles

প্রধানমন্ত্রী জনধন যোজনা (PMJDY) কী?

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ২০১৪ সালের ২৮ অগাস্ট চালু করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী জনধন যোজনা স্কিম। এই প্রকল্প সমাজের সকল স্তরের মানুষের মধ্যে আর্থিক অ্যাক্সেস ছড়িয়ে দেয়। যা দেশের সাধারণ মানুষকে আর্থিকভাবে ক্ষমতায়িত করতে একটি জাতীয় মিশন হিসেবে বিবেচিত হয়। প্রধানমন্ত্রীর জনধন প্রকল্পে ভারতের একটি পরিবারের জন্য অন্তত একটি মৌলিক অ্যাকাউন্ট ওপেন এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে আর্থিক সাক্ষরতা প্রদান করে।  বর্তমানে এই প্রকল্পটি দশ বছরের কোটা পার করেছে। প্রধানমন্ত্রীর এই প্রকল্পটি চালু হওয়ার প্রায় এক বছরের মধ্যে ১২.৫৪ কোটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ওপেন করে। বর্তমানে এই প্রকল্পটি গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে নাম তুলেছে। ভারতীয় জনসাধারণ যাঁরাই PMJDY স্কিমের আবেদন করবেন, তাঁদের সবাইকে একঝাঁক সুবিধা দেওয়া হবে। 

PMJDY প্রকল্পে কী কী সুবিধা পাওয়া যায়?

১) PMDJY বা জনধন যোজনার বিস্তৃতি ছড়িয়েছে দেশের গ্রাম থেকে শহর সর্বত্রই। যে কোনো বাসিন্দা এই প্রকল্পের সুবিধা পেতে পারেন।
২) প্রধানমন্ত্রী জনধন যোজনায় নাম তোলা সকল সুবিধাভোগী তথা অ্যাকাউন্ট হোল্ডাররা একটি করে RuPay ডেবিট কার্ড পান।
৩) এই স্কিমের সবচেয়ে বড় সুবিধা হল সুবিধাভোগী ন্যুনতম ব্যালেন্স ছাড়াই অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। অর্থাৎ জিরো ব্যালেন্স অ্যাকাউন্ট খোলা সম্ভব।

৪) জনধন যোজনা USSD সুবিধা প্রদান করে। এই সুবিধা ব্যবহার করে একজন ব্যক্তি মোবাইল ব্যাঙ্কিংয়ের সঙ্গে কোর ব্যাঙ্কিং সিস্টেম প্রদান নিশ্চিত রূপে পেতে পারেন। শুধু তাই নয়, স্কিমের সুবিধাভোগীকে দুর্ঘটনা ২ লক্ষ টাকা বীমাও প্রদান করা হয়।
৫) উল্লিখিত সুবিধাগুলি ছাড়াও জনধন যোজনায় যোগ্য সুবিধাভোগী ৩০ হাজার টাকার জীবনবিমা কভার করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী জনধন যোজনায় আবেদন কিভাবে?

১) জনধন যোজনা প্রকল্পের সুবিধা পেতে প্রথমে ভিজিট করুন নিকটস্থ ব্যাঙ্ক অথবা পোস্ট অফিসে। সেখান থেকে ফর্ম ফিল আপ করে নিজের নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন।

২) অনলাইনে আবেদন করতে চাইলে ভিজিট করুন প্রকল্পের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে। সেখান থেকে অ্যাপ্লিকেশন ফর্মটি ডাউনলোড করে তা যথাযথভাবে পূরণ করে, প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট যুক্ত করে সরাসরি ব্যাঙ্কে গিয়ে জমা করে আসুন। ফর্ম জমা পড়ার কিছুদিনের মধ্যেই আপনার অ্যাকাউন্ট ওপেন হয়ে যাবে।

প্রয়োজনীয় নথিপত্র

  • আবেদনকারীর আধার কার্ড / ভোটার কার্ড/ প্যান কার্ড/ রেশন কার্ড।
  • আবেদনকারীর পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • বাসস্থান ঠিকানার প্রমাণপত্র (পাসপোর্ট/ ড্রাইভিং লাইসেন্স/ ইলেক্ট্রিসিটি বিল/ টেলিফোন বিল/ জল বিল)।
  • প্রয়োজন হলে আরো অন্য কোনো নথি চাওয়া হতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী জনধন যোজনার সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

🔔 বিভিন্ন ধরনের সরকারি প্রকল্প, চাকরি, শিক্ষা ও স্কলারশিপ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপটেলিগ্রাম গ্রুপে যুক্ত হোন –

Leave a Comment

Join Join