Part Time Business – টাকা উপচে পড়বে! শুধু নামমাত্র পুঁজিতে শুরু করুন এই ব‍্যবসা,লাভের অঙ্কটা একবার দেখুন

Part Time Business : ব্যবসা করার কথা ভাবছেন? চাকরি করে কোনো রকমে সংসার যদিও বা টেনেটুনে নিয়ে চলা যায়, সেক্ষেত্রে জীবনের অন্যান্য শখ আহ্লাদ পূরণ করা যায় না। একটু ভালোভাবে জীবন যাপন করতে হলে টাকার প্রয়োজন। এটা ঠিক, বর্তমানে যেকোনো সাধারণ মানের চাকরি-বাকরি করে অধিকাংশ মানুষই কোনো রকমে হয়তো বা দিন গুজরান করছেন, কিন্তু টাকা সঞ্চয় করা থেকে শুরু করে জীবনের অন্যান্য প্রয়োজনীয়তা মেটাতে পারছেন না। আর সেই কারণেই চাকরির পাশাপাশি পার্ট টাইমে কোনো একটি কাজ (Part Time Business) করার কথা ভাবছেন। সেক্ষেত্রে প্রথমেই আসে পার্টটাইম কোনো ব্যবসার বিষয়। এবার ভাবলেই তো হলো না। চাকরি বাঁচিয়ে রেখে ব্যবসা করতে হবে। এমন কোন ব্যবসা করতে হবে, যা কিনা শুরু করতে সেরকম বিরাট পুঁজি বিনিয়োগের প্রশ্ন নেই, আবার চাকরির পাশাপাশি করা যাবে। তার সঙ্গে সেই ব্যবসার মার্কেটে চাহিদাও রয়েছে। এবার এই ধরনের ব্যবসার খোঁজ করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন। না, কোনো সমস্যা নেই।

এখানে এরকমই একটি ব্যবসার বিষয়ে জানানো হবে, যা কিনা চাকরির পাশাপাশি ঘরে বসে সামান্য কিছু পুঁজি বিনিয়োগ করেই শুরু করে (Low Investment Part Time Business from Home) ফেলা যায়। তার সঙ্গে মার্কেটেও এই ব্যবসার চাহিদা প্রচুর। এবার এক নজরে দেখে নেওয়া যাক, কিসের ব্যবসা, কত মূলধন লাগবে, লাভের অঙ্ক কিরকম আসবে, সেই বিষয়ে বিস্তারিত খুঁটিনাটি:

আরও পড়ুন »

Part Time Business in India

দিন বদলেছে, মানুষের জীবনযাত্রার মান বদলেছে। এখন আর অধিকাংশ মানুষকেই দোকানে গিয়ে বা কোনো শপিংমলে গিয়ে লাইন দিয়ে দাঁড়িয়ে জিনিসপত্র কেনাকাটা করতে দেখা যায় না। হাতে মুঠোফোন রয়েছে, তাতেই অনলাইনে সমস্ত কেনাকাটা (Online Marketing) সেরে ফেলা সম্ভব। আর তারপরে ই-কমার্স প্ল‍্যাটফর্মে (E-COMMERCE Platform) কেনাবেচা দিনের পর দিন জেট গতিতে বেড়ে চলেছে। আর যখনই কোনো জিনিসপত্র তা সে পোশাক পরিচ্ছদ, জামা জুতো, অলংকার, গিফট আইটেম, ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স গুডস, বিভিন্ন ধরনের গ্যাজেটস (Gadgets) যাই হোক না কেন, অনলাইনে অর্ডার দিলেই ডেলিভারি সংস্থাগুলি হাতের নাগালে পৌঁছে দেয়। আর সেই সামগ্রীটি পৌঁছে দেওয়ার জন্য প্রয়োজন হয় একটি ভাল কার্ডবোর্ডের বাক্সের (Cardboard Box)।

হ্যাঁ, তা সে অনলাইন বা অফলাইন, যেখানেই আপনি একটি সামগ্রী কিনুন না কেন, আপনাকে একটি বাক্সের ভিতরেই তা প্যাকিং করে দেওয়া হয়ে থাকে। কখনো কি ভেবেছেন, এই কার্ডবোর্ডের বাক্স কিভাবে তৈরি হয়? এর বাজার কি রকম? যে ব্যবসার কথা বলছি, তা হল এই কার্ডবোর্ডের বাক্স তৈরীর ব্যবসা (Cardboard Box Making Business) সম্পূর্ণ ঘরে বসে কিছু টাকা বিনিয়োগ করেই ব্যবসা শুরু করে ফেলা যায়। যেহেতু দিন দিন ই-কমার্স প্ল‍্যাটফর্মে কেনাবেচা বেড়ে চলেছে, ফলে কার্ডবোর্ডের বাক্সের চাহিদাও উত্তরোত্তর বাড়ছে। তাই এই ব্যবসা শুরু করলে আগামী দিনে বিরাট পরিমানে মুনাফা অর্জন করতে পারবেন (Low Investment Huge Profit Business)

কত টাকা বিনিয়োগ করতে হবে? (How much amount investment for this business?)

প্রথমেই বলা হয়েছে কার্ডবোর্ডের বাক্স তৈরীর ব্যবসা করতে বিরাট পুঁজির দরকার নেই। সেক্ষেত্রে কম বেশি ৭০ থেকে ৮০ হাজার টাকা বিনিয়োগ করলেই শুরু করে ফেলা যায়। অটোমেটিক মেশিন এর প্লান্ট বসিয়ে কার্ডবোর্ডের বাক্স তৈরির ব্যবসা  শুরু করতে গেলে এই পরিমাণ টাকার প্রয়োজন রয়েছে। পরবর্তীতে ব্যবসা বৃদ্ধির সাথে সাথে পুঁজি বিনিয়োগ করতে পারেন। সেক্ষেত্রে ব্যবসাও বাড়বে, লাভের পরিমাণও বাড়তে থাকবে।

কার্ডবোর্ডের বাক্স তৈরির মেশিনের কি দাম? (Automatic Machine Market Price)

মূলত কার্ডবোর্ডের বাক্স তৈরি করতে গেলে যে ধরনের অটোমেটিক মেশিন লাগে, তা অনলাইন বা অফলাইন দুই পদ্ধতিতে ক্রয় করতে পারেন। সেক্ষেত্রে অটোমেটিক মেশিন ন্যূনতম ৪৮ হাজার টাকা থেকে শুরু হয়। একটু ভালো মানের অটোমেটিক মেশিন নিতে গেলে স্বাভাবিকভাবেই দাম একটু বেশি পড়তে পারে। তবে সর্বসাকুল্যে প্রথম দিকে ব্যবসা শুরু করতে গেলে ৭০ থেকে ৮০ হাজার টাকা বিনিয়োগ করলেই চালু করতে পারবেন।

আরও দেখুন » এখন এইভাবে পোস্ট অফিস ফ্র্যাঞ্চাইজ এজেন্ট হয়ে আয় করুন প্রচুর টাকা, জেনে নিন বিস্তারিত

এবার আসা যাক আসল কথায়। কার্ডবোর্ডের বাক্স তৈরির ব্যবসা শুরু করে আদৌ কতখানি লাভ করতে পারবেন? (Cardboard Box Making Business Profits):

যেহেতু দিনের পর দিন অনলাইন কেনাকাটার পরিমাণ বাড়ছে, ফলে কার্ডবোর্ডের বাক্সের চাহিদাও বাড়ছে। কারণ যেকোনো সামগ্রী প্যাকিং করতে গেলে কার্ডবোর্ডের বাক্সর প্রয়োজন হয়। ফলে এর চাহিদা নিয়ে এর পরে আর বেশি কিছু বলার দরকার নেই। আপনি যদি অনলাইন ছাড়া অফলাইনেও কোনো জিনিস কেনেন, তাও একটি বাক্সের মধ্যে প্যাকিং করে দেওয়া হয়। ফলে এর বাজার বরাবরই রয়েছে। আর এখন তো তার চাহিদা দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে। এই ব্যবসা শুরু করে বছরে কম বেশি ৮ থেকে ১২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত উপার্জন করতে পারবেন।

আরও দেখুন » Amul Franchise নিয়ে প্রতি মাসে আয় করুন লাখ লাখ টাকা।

ব্যবসা বাড়ানোর জন্য সোশ্যাল মিডিয়া প্ল‍্যাটফর্মগুলির সহায়তা নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে খুব তাড়াতাড়ি আপনার ব্যবসার সম্বন্ধে ক্রেতারা জানতে পেরে যাবে এবং তারপরই সংস্থাগুলির সঙ্গে আপনি চুক্তিবদ্ধ হতে পারবেন। চাকরির পাশাপাশি অল্প পুঁজি বিনিয়োগে নির্ভরতার সঙ্গে এই কার্ডবোর্ডের বাক্স তৈরীর ব্যবসা এক্ষুনি শুরু করে ফেলুন, আর দুই হাত দিয়ে মুনাফা তুলে নিন।
Written by Rajib Ghosh.

🔔 বিভিন্ন ধরনের সরকারি প্রকল্প, চাকরি, শিক্ষা ও স্কলারশিপ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপটেলিগ্রাম গ্রুপে যুক্ত হোন –

Leave a Comment

JoinJoin