Credit Card-এ চুটিয়ে শপিং করছেন? এই নিয়ম মেনে চলুন, নাহলে সর্বস্বান্ত হবেন

জীবনে চাহিদা সবসময়ই ক্রমবর্ধমান। আর সেই চাহিদা পূরণ করার জন্য সকলেই কোনো না কোনোভাবে চেষ্টা করতে থাকেন। কিন্তু সবার ক্ষেত্রে তো আর জীবনের সব চাহিদা পূরণ করা সম্ভব নয়। জীবন যত এগোতে থাকবে, ভোগ বিলাসিতার সামগ্রী যত হাতের নাগালের মধ্যে বাজারে আসতে থাকবে, ততই তা ভোগ করার চাহিদাও মানুষের মধ্যে বাড়তে থাকবে। সেই কেনাকাটার তালিকায় সমস্ত কিছুই থাকতে পারে।

তবে এখন কেনার পদ্ধতি হয়ে গিয়েছে সহজ। প্রায় প্রতিটি কোম্পানি তাদের দামি দামি ভোগ্যপণ্য মানুষের কাছে মাসিক কিস্তিতে (EMI) হাতের কাছে পৌঁছে দিচ্ছে। ফলে মানুষও সেই সুযোগ হাতছাড়া করতে চাইছে না।  কারণ এই মুহূর্তে প্রায় সকলের কাছেই দেখা যায়, বিভিন্ন ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড (Credit Card) রয়েছে। তাও আবার একটি নয়, অনেকের তো বহু ক্রেডিট কার্ড রয়েছে।

❖  Related Articles

আলাদা একটি হাত ব্যাগের মধ্যে যেখানে 5, 7 বা 10টা ক্রেডিট কার্ড জ্বলজ্বল করে উঁকি মারছে। যারা একটু ভাল বেতনের চাকরি করেন বা একটু প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী, তাদের মধ্যে যারা বেশিরভাগ সময়ে শপিং (Shopping) করতে ভালোবাসেন, তাদের জীবনযাপনের সঙ্গেই ক্রেডিট কার্ড জড়িয়ে গিয়েছে। এমন কি বহু নিম্ন মধ্যবিত্ত, মধ্যবিত্ত পরিবারের মানুষেরাও ক্রেডিট কার্ড দিয়ে শপিং করা শুরু করেছেন। এটা রীতিমতো একটা Trend হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু এই ক্রেডিট কার্ড দিয়ে শপিং করতে গিয়ে কত সমস্যা যে জীবনে তৈরি করে ফেলেছেন, তা হয়তো অনেকেই বুঝতে পারেন না। পরবর্তীতে যখন সেই টাকা মেটাতে হয় বা  সেই সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়, তখন হাড়ে হাড়ে টের পেয়ে যান।

বিষয় সূচী ~

Credit Card Rules

বহু মানুষ রয়েছেন যারা একাধিক ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করেন এবং প্রচুর শপিং করে থাকেন। আবার সেই শপিং এর ফলে বিভিন্ন রিওয়ার্ড (Shopping Reward) পান, সেগুলি ব্যবহার করে অনেক ছাড় পেয়ে থাকেন। আবার বেশিরভাগ মানুষকে দেখা যায়, ক্রেডিট কার্ডে এই ধরনের শপিং করতে গিয়ে একের পর এক ঋণের ফাঁদে জড়িয়ে যাচ্ছেন।

এবার কতগুলি ক্রেডিট কার্ড রাখতে পারবেন, সেই বিষয়ে তো কোনো নির্দিষ্ট নিয়ম জারি করা নেই। আর কোনো নিষেধাজ্ঞাও নেই। ফলে যে যতখানি সম্ভব ক্রেডিট কার্ড জড়ো করে রাখছেন। এক্ষেত্রে অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞদের কথায়, যদি উপার্জনের কোনো নির্দিষ্ট উৎস থাকে, তাহলে বহু ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করলে ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়। কারণ যদি ৮-১০টা ক্রেডিট কার্ড থাকে, তাহলে প্রতিটি কার্ডের পেমেন্টের তারিখও হয় ভিন্ন (Different Date of Credit Card Payment) তাদের Interest Rate অর্থাৎ সুদের হার বিভিন্ন রকমের। আর সব সময় সব তথ্য এক জায়গায় করে রাখা যায় না। তাই সেই কারণে বড় আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়। কিন্তু এক্ষেত্রে একটু সাবধানতা নিয়ে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করলে এই ধরনের সমস্যায় পড়ার সম্ভাবনা থাকে না। এক নজরে দেখে নেওয়া যাক, ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের ক্ষেত্রে কোন কোন নিয়মগুলি মেনে চললে সমস্যা তৈরি হবে না।

আরো পড়ুন » এই ধরণের প্যান কার্ড থাকলে গুনতে হবে জরিমানা। কড়া নির্দেশ দিল আয়কর বিভাগ

Credit Card Using Tips

  • ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করলে প্রথমেই মাথায় রাখতে হবে কার্ডের বিলের উপরে চাপানো চার্জ এবং বিল জমা দেওয়ার তারিখের কথা।
  • প্রত্যেকটি ক্রেডিট কার্ডের ক্ষেত্রে একটি নির্ধারিত সীমা পর্যন্ত শপিংয়ের ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়। তার অধিক বা বেশি কেনাকাটা হলে কিন্তু সেই ছাড় পাওয়া যায় না।
  • প্রতিটি ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ডের বাৎসরিক চার্জ (Yearly Charge) কিন্তু আলাদা। সেটাও খেয়াল রাখতে হবে।
  • Credit কার্ডের বিল সময়মতো শোধ করতে না পারলে ৪০ শতাংশ পর্যন্ত সুদ চার্জ করা হয়।
  • বেশ কিছু ক্রেডিট কার্ডের ক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে, জ্বালানি ভরা হলে বিশেষ করে পেট্রোল পাম্পে ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করা হলে তার উপর সারচার্জ ধার্য করা হয়ে থাকে। সেদিকে নজর রাখতে হবে।
  • আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, ক্রেডিট কার্ড থেকে কখনোই নগদ টাকা তোলা ঠিক নয়। যতই প্রয়োজন হোক না কেন, ক্রেডিট কার্ড দিয়ে ক্যাশ তুললে সেই নগদ টাকার উপরে শুরু থেকেই সুদ নেওয়া হয়ে থাকে।

এই ধরনের আরও আপডেট পেতে আমাদের ওয়েবসাইট infonetbangla.in ফলো করুন।

🔔 বিভিন্ন ধরনের সরকারি প্রকল্প, চাকরি, শিক্ষা ও স্কলারশিপ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপটেলিগ্রাম গ্রুপে যুক্ত হোন –

Leave a Comment

Join Join