Big Breaking – জলের দরে মিলবে স্মার্টফোন! বিরাট সিদ্ধান্ত টাটা গ্রুপের

একধাক্কায় একেবারে দাম তলানিতে নেমে যেতে পারে স্মার্টফোনের। কি শুনে অবাক হচ্ছেন? না, অবাক হওয়ার কিছু নেই। আজ যে দামে স্মার্টফোন কিনতে হচ্ছে ভারতবর্ষের মানুষকে, আগামী দিনে দেশবাসী সেই স্মার্টফোন একেবারে সস্তায় নিজের হাতের মুঠোয় নিয়ে আসতে পারবেন। প্রযুক্তির দুনিয়ায় বিপ্লব ঘটিয়েছে হাতের মুঠোফোন। একটা স্মার্টফোনে ঘরে বসে সারা বিশ্বের সমস্ত কাজ নিমেষেই করে ফেলা সম্ভব। আর এই মুহূর্তে দেশের যে সমস্ত মানুষের হাতে স্মার্টফোন রয়েছে, তারা যেমন নিত্যনতুন কম দামের মধ্যে ভালো ফোন খুঁজতে চান, ঠিক তেমনি দেশের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে যেখানে স্মার্টফোন এখনো অধিকাংশ মানুষের হাতে পৌঁছয় নি, তাদের হাতেও স্মার্টফোন আগামী দিনে আসতে চলেছে। কারণ দেশের শিল্প গোষ্ঠী টাটা গ্রুপ (TATA Group) দেশের অন্দরে স্মার্টফোনের জন্য লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি (Lithium Battery Manufacturing Company) উৎপাদনের কারখানা প্রস্তুত করতে চলেছে।

এখনো পর্যন্ত বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম সূত্রে যা জানা গিয়েছে, তাতে দেশীয় স্তরে টাটা গ্রুপ চিপসেট এবং লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি উৎপাদনের কারখানা তৈরি করবে। আর এর ফলে ভবিষ্যতে ভারতবর্ষে গাড়ি এবং স্মার্টফোনের দাম একেবারে তলানিতে নামতে পারে। যার ফলে উপকৃত হবেন সমগ্র ভারতবাসী। আর অন্যদিকে পড়শি দেশ চীন মোক্ষম ধাক্কা খেতে চলেছে। তার কারণ, এতদিন পর্যন্ত চীন থেকেই বিশ্ববাজারে স্মার্টফোন, ইলেকট্রনিক্স পার্টস এবং গাড়ি তৈরির জন্য বিভিন্ন ধরনের এক্সেসরিজ আমদানি করা হতো। আর এর ফলে পড়শি দেশ চীনের অর্থনীতিও ছিল একেবারে যথেষ্ট সমৃদ্ধ। আর বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলি চীনের অর্থনীতি শক্তিশালী হওয়ার কারণে তাদের কাছে আর্থিকভাবে ঋণের ফাঁদে বাঁধা পড়ে যেত।

যারা একটু আধটু খোঁজখবর রাখেন, তারা সকলেই জানেন, ভারতসহ গোটা দক্ষিণ এশিয়াকে জনপ্রিয়তার নিরিখে চীনের তৈরি গাড়ি এবং স্মার্টফোন যথেষ্ট পিছনে ফেলে দিত। আর এটাই ছিল চীনের অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করার অন্যতম ইউএসপি। তবে কোভিড মহামারীর কারণে পরিস্থিতির অনেকটা বদল ঘটে গিয়েছে। যেহেতু চীন থেকেই এর উদ্ভব বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, সেই কারণে চীনের ব্যবসা-বাণিজ্য থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের উৎপাদন সেক্টরগুলিও (Manufacturing Sector) যথেষ্ট ধাক্কা খেয়েছে। আর চীনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ ওঠে, বিশেষ করে চীনকে ডেটা পাচার সংক্রান্ত অভিযোগের কারণে ব্যবসায়িকভাবে কোনঠাসা হতে হয়। আর তারপরেই ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির উদ্যোগে মেক ইন ইন্ডিয়া (Make In India) কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে দেশের টেকনোলজি ক্ষেত্রে এর যথেষ্ট অগ্রগতি দেখা গিয়েছে।

আরও পড়ুন »

একাধিকবার শোনা গিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর মুখে দেশের অন্দরে এই বিভিন্ন ধরনের ম্যানুফ্যাকচারিং এর ব্যবসাকে বাড়িয়ে তোলার প্রসঙ্গ। আর তারপর থেকেই ধীরে ধীরে দেশ অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে। বর্তমানে আমাদের দেশে স্মার্টফোন ম্যানুফ্যাকচারিং হচ্ছে। গাড়ির অ্যাক্সেসরিজ তৈরি হচ্ছে। ভারত আত্মনির্ভর হওয়ার দিকে একটু একটু করে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে। সেক্ষেত্রে ২০২৩ কে পিছনে ফেলে ২০২৪ এর নতুন বছরে টাটা গ্রুপের তরফে সেমিকন্ডাক্টার ব্যাটারি (Semi Conductor Battery) এবং চিপসেট বানানোর সিদ্ধান্ত এই আত্মনির্ভর হওয়ার পদক্ষেপকে আরো কয়েক ধাপ এগিয়ে দিয়েছে।

আর এর পাশাপাশি চীনের উদ্বেগ বাড়তে চলেছে। গাড়ি এবং স্মার্টফোনে যে সমস্ত ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়, তার অধিকাংশটাই চীন বা তাইওয়ান এর মত দেশ থেকেই আমদানি করা হতো। আর টাটা গ্রুপ এখন ভারতে এই ব্যাটারি এবং চিপসেট তৈরির কারখানা তৈরি করলে সেদিক থেকে যেমন আমদানি করতে হবে না, অন্যদিকে ভারতবর্ষের মধ্যে স্মার্টফোন বা গাড়ির দাম তুলনামূলকভাবে অনেক গুণ কমে যেতে চলেছে। এবার প্রশ্ন হল, টাটার এই চিপসেট এবং ব্যাটারি তৈরির কারখানা কোথায়, কবে নাগাদ তৈরি হতে পারে? এ প্রসঙ্গে এখনো পর্যন্ত যা জানা গিয়েছে, ২০২৪ সালের মধ্যেই টাটা গ্রুপের এই সেমিকন্ডাক্টর ফ‍্যাব্রিকেশন প্ল‍্যান্ট তৈরির কাজ শুরু হতে চলেছে। গুজরাটের ধলেরাতে টাটা গ্রুপের সংস্থা বড় Semi Conductor Fabrication Plant তৈরি করবে।

আরও পড়ুন » বাজাজ, টিভিএসকে টেক্কা! বাজারে এলো সবচেয়ে সস্তার ইলেকট্রিক স্কুটার, দাম শুনলে চমকে যাবেন

টাটা গ্রুপের চেয়ারম্যান এন চন্দ্রশেখরন এই বিষয়ে জানান, গুজরাটের সানন্দ শহরে দুই মাসের মধ্যে ২০ গিগাওয়াট লিথিয়াম আয়ন স্টোরেজ ব্যাটারি কারখানার তৈরীর কাজ শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে। আর এই খবর ভারতবাসীর কাছে যথেষ্ট সুখবর। কারণ টাটা গ্রুপের এই ম্যানুফ্যাকচারিং ইন্ডাস্ট্রি তৈরি হয়ে গেলে এক ধাক্কায় দেশের অন্দরে স্মার্টফোনের দাম একেবারে তলানিতে (Smartphone Price Decreased in India) চলেছে। যার ফলে উপকৃত হবেন সমগ্র দেশবাসী। সেই অপেক্ষাতেই দিন গুনছে দেশের মানুষ।
Written by Rajib Ghosh

🔔 বিভিন্ন ধরনের সরকারি প্রকল্প, চাকরি, শিক্ষা ও স্কলারশিপ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপটেলিগ্রাম গ্রুপে যুক্ত হোন –

Leave a Comment

JoinJoin