KYC-র নিয়মে বিরাট বদল, মানতে হবে সবাইকেই! নির্দেশ জারির পথে সরকার

Uniform KYC: বর্তমানে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে কেওআইসি (KYC) বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। শুধুমাত্র ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নয়, স্টক মার্কেটে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে কেওআইসি এখন বাধ্যতামূলক হয়ে গেছে। KYC -এর পুরো কথা হল (Know Your Customer) বা সংশ্লিষ্ট গ্রাহক সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য। এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে অর্থনৈতিক সংস্থা, ব্যাঙ্ক, মিউচুয়াল ফান্ড তাঁদের গ্রাহক সম্পর্কে তথ্য নিজেদের কাছে রেকর্ড হিসেবে রেখে দেয়। কয়েক বছর আগেও KYC-র প্রক্রিয়াটি তেমন নিয়মিত ছিলনা। তবে বর্তমানে এই প্রক্রিয়ায় জোর দিচ্ছে অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানগুলি।

কেওআইসি প্রক্রিয়ায় তথ্য আপডেটের জন্য গ্রাহকদের বারবার ছুটতে হয় ব্যাঙ্ক, আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলিতে। বলাইবাহুল্য, এর জন্য হয়রানির শিকার হতে হয় তাঁদের। প্রতিবার কেওআইসির জন্য ডকুমেন্ট জমা দিতে হয়। শুধু তাই নয় বারবার কেওআইসি করার প্রক্রিয়াও যথেষ্ট সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। এর জন্য প্রচুর পেপারওয়ার্ক ইত্যাদি করতে হয়। তাই এবার সমস্ত জটিলতা দূর করতে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের পথে সরকার। ইতোমধ্যে ফিনান্সিয়াল স্টেবিলিটি অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিল (FSDC) ইউনিফর্ম কেওআইসি (Uniform KYC) শুরু করার পরামর্শ দিয়েছে। এটি শুরু হলে গ্রাহকদের ঝুট ঝামেলা অনেকটাই কমবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

ইউনিফর্ম কেওআইসি প্রক্রিয়াটি কীভাবে কাজ করবে?

একজন গ্রাহক যখন ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খোলেন, তখন তাঁকে অ্যাকাউন্টের সঙ্গে পরিচয়পত্র রূপে কেওআইসি প্রক্রিয়াটি করতে হবে। অর্থাৎ গ্রাহককে কেওআইসি (KYC) করার দরকার পড়বে। ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ছাড়াও গ্রাহক যদি স্টক মার্কেটে বিনিয়োগ করেন, তখনও তাঁর কেওআইসি করার প্রয়োজন পড়বে। কিন্তু ইউনিফর্ম কেওআইসিতে  এখনকার মতো গ্রাহককে আর বারবার ছুটে যেতে হবেনা তথ্য আপডেটের জন্য। নতুন প্রক্রিয়ায় ফিনান্সিয়াল সেক্টরের কোনো পরিষেবার জন্য একজন গ্রাহককে একবার-ই কেওআইসি করতে হবে। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের তথ্যানুসারে, কেন্দ্র সরকার ফিনান্স সেক্রেটারি ঢিবি সোমনাথন-এর নেতৃত্বে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন করেছে যা ইউনিফর্ম কেওআইসি সংক্রান্ত নিয়ম কাঠামো প্রস্তুত করবে।

ইউনিফর্ম কেওআইসি প্রক্রিয়ায় একজন গ্রাহককে ১৪ সংখ্যার CKYC Number দিয়ে দেওয়া হবে। এর পাশাপাশি, গ্রাহকের কেওআইসি রেকর্ড SEBI-এর সঙ্গে RBI, IRDAI, PFRDA-এর মতো সবকটি জায়গায় পাঠিয়ে দেওয়া হবে। তার ফলে গ্রাহককে প্রতিটি জায়গায় আলাদা করে কেওআইসি করতে হবেনা। ফলে স্বাভাবিকভাবেই অনেকটা সমস্যা মুক্ত হবেন সাধারণ মানুষ।

🔔 বিভিন্ন ধরনের সরকারি প্রকল্প, চাকরি, শিক্ষা ও স্কলারশিপ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপটেলিগ্রাম গ্রুপে যুক্ত হোন –

Leave a Comment

Join Join