E Shram Card – এই কার্ড থাকলেই মাসে মাসে পাবেন ৩ হাজার টাকা! না থাকলে দেখুন কিভাবে আবেদন করতে হবে

E Shram Card : আজকের দিনে ভারতে সরকারি হোক কিংবা বেসরকারি অসংগঠিত ক্ষেত্রগুলিতে প্রচুর মানুষ কাজ করতে থাকেন। যাদের আমরা সাধারণত শ্রমিক বলেই চিনে থাকি। আমাদের দেশের প্রায় ৪০ কোটিরও বেশি শ্রমিক অসংগঠিত ক্ষেত্রগুলিতে কাজ করতে থাকেন। কিন্তু এই বিপুল সংখ্যক মানুষের আর্থিক নিরাপত্তা বা  ভবিষ্যতের সঞ্চয় বলে খুব একটা বেশি কিছুই থাকে না। তারা কোনো ভাবেই পেনশন পাওয়ার অধিকারী নন। সেই সকল শ্রমিকদের পেনশন দেওয়ার জন্য কেন্দ্র সরকারের তরফে একটি নতুন সিস্টেম নিয়ে আসা হয়েছে। সেটি হলো ই-শ্রম কার্ড (E Shram Card)।

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, এখনো পর্যন্ত দেশের ২০ কোটিরও বেশি মানুষ ই-শ্রম কার্ড (E Shram Card) -এ নাম নথিভুক্ত করেছেন এবং ২ কোটিরও বেশি মানুষ ই-শ্রম কার্ডের আওতায় এই পরিষেবা পাচ্ছেন। বাকিরাও খুব শীঘ্রই এই পরিষেবা পাবেন।

E Shram Card
E Shram Card

কেন্দ্রীয় সরকার দেশের অসংগঠিত ক্ষেত্রে কর্মী ও সমাজের প্রান্তিক মানুষদের কাছে সমস্ত পরিষেবা পৌঁছে দিতে চাইছে এই প্রকল্পটির মাধ্যমে। আর এই কারণেই বর্তমানে ই-শ্রম কার্ড খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই কার্ডটিতে নাম নথিভুক্ত থাকলে PMAY, PMJAY, PM Kisan সহ একাধিক কেন্দ্রীয় সরকারের সামাজিক প্রকল্প গুলির সুবিধা পাওয়া যায়।

আরও পড়ুন »

E Shram Card Apply

আপনি যদি অসংগঠিত ক্ষেত্রে কর্মী হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন এবং এই E Shram Card এ আপনার নাম নথিভুক্ত থাকে, তাহলেই আপনি মাসে মাসে ৩০০০ টাকা করে পেনশন পাবেন। আর যদি আপনার নাম নথিভুক্ত না থাকে, তাহলে আপনাকে এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট eshram.gov.in -এ গিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। এছাড়াও আপনি আপনার নিকটবর্তী CSC সেন্টারে গিয়েও এই কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন। 

কি কি সুবিধা মিলবে এই প্রকল্পের আওতায়?

এই প্রকল্পের মাধ্যমে নথিভুক্ত ব্যক্তির বয়স ৬০ বছর হলে প্রতি মাসে ৩০০০ টাকা করে পেনশন পাবেন। শুধু পেনশনই নয়, কর্মরত অবস্থায় কোনো কারণবশত পঙ্গু হয়ে গেলে ওই ব্যক্তি ১ লক্ষ টাকা আর্থিক সহায়তা পাবেন। আবার যদি কর্মরত অবস্থায় মারা যান তাহলে ২ লক্ষ টাকার আর্থিক সহায়তা পাবেন।

কারা আবেদন করতে পারবেন?

১৬ বছর থেকে ৫৯ বছর বয়সী শ্রমিকরা এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন। এছাড়াও যেসকল শ্রমিকরা EPF এবং ESI এর সুবিধা পাচ্ছেন তারাও এই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

কি কি কাগজপত্র লাগবে ?

আধার কার্ড, সক্রিয় ও বৈধ মোবাইল নম্বর, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের বিবরণ। এই ধরনের আরও আপডেট পেতে আমাদের ফলো করতে ভুলবেন না, ধন্যবাদ।

রাজ্যে শুরু হতে চলেছে চাকরির মেলা, মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক পাশ এবং অন্যান্য শিক্ষাগত যোগ্যতায় আবেদন করুন

🔔 বিভিন্ন ধরনের সরকারি প্রকল্প, চাকরি, শিক্ষা ও স্কলারশিপ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ আপডেট মিস করতে না চাইলে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপটেলিগ্রাম গ্রুপে যুক্ত হোন –

Leave a Comment

JoinJoin